2500 Rs instead of 1500 in Yuvashree prakalpa
WhatsApp Group Join Now

সবুজ সাথী থেকে শুরু করে কন্যাশ্রী, রূপশ্রী , লক্ষ্মীর ভান্ডার রাজ্য সরকারের একের পর এক জনহিতকারী এইসব প্রকল্পগুলি শুধু নারী সুরক্ষা প্রদানের উদ্দেশ্যে।

বিগত মাসে লক্ষ্মীর ভান্ডার থেকে শুরু করে একাধিক প্রকল্পের আর্থিক অনুদানের মাত্রা বেড়েছে, এর পাশাপাশি পড়ুয়াদের জন্য একাধিক সুবিধার কথা বাজেটে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য।

তবে এইবার শুধু নারীর উন্নতি নয় এই রাজ্যের অসংখ্য বেকার যুবক যুবতীর উন্নতি সাধনের উদ্দেশ্যে নিয়ে আসা হয়েছে এক নতুন প্রকল্প। যে প্রকল্পের উদ্দেশ্যই হলো বেকার যুবক-যুবতীদের কর্মদ্যোগী করে গড়ে তুলতে সাহায্য করা। এই প্রকল্পের নাম হল যুবশ্রী প্রকল্প।

২০১৩ সাল থেকে বেকার যুবক-যুবতীদের জন্য যুবশ্রী প্রকল্প চালু হয়েছিলো, কর্মহীন যুব সমাজকে আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী করবার জন্যই চালু করা হয়ে ছিলো এই প্রকল্প।

এই প্রকল্প থেকে প্রত্যেক বছর এক লাখেরও বেশি যুবক যুবতী উপকৃত হয়ে থাকেন, এই বরাদ্দকৃত প্রকল্পের জন্য রাজ্য সরকার খরচ করছে ২০০ কোটি টাকা। এতদিন ধরে এই প্রকল্পে বেকার যুবক যুবতীদের ১৫০০ টাকা করে দেওয়া হতো। তবে এইবার থেকে আরো ১০০০ টাকা বাড়িয়ে ভাতার পরিমাণ করা হলো ২৫০০ টাকা।

এই যুবশ্রী প্রকল্পের ভাতার ফলে বেকার যুবক যুবতীদের অনেক উন্নতি হবে। মূলত এই অর্থের ফলে কোন প্রশিক্ষণমূলক কাজের জন্য তারা ট্রেনিং নিতে পারবেন।

WhatsApp Group Join Now

যুবশ্রী প্রকল্পে আবেদন করবার জন্য আবেদনকারীর যোগ্যতা কী কী প্রয়োজন?

১। আবেদনকারীকে অবশ্যই পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা হতে হবে

২। ১৮ থেকে ৪০ এর মধ্যে বয়স হতে হবে।

৩। আবেদনকারীকে অন্তত পক্ষে মাধ্যমিক পাশ হতে হবে।

৪। এই প্রকল্পে আবেদন করার আগে এমপ্লয়মেন্ট ব্যাঙ্ক (Employment Bank) এ নাম নথিভুক্ত করে রাখতে হবে ‌।

৫। পরিবারের বার্ষিক ইনকাম দু লক্ষ টাকার কম হতে হবে।

কি কি কাগজপত্র লাগবে?

এই প্রকল্পে আবেদন করবার জন্য জন্ম প্রমাণপত্র, বাসস্থানের প্রমাণপত্র, কাস্ট সার্টিফিকেট এবং শিক্ষার প্রমান পত্র লাগবে।

Read More: পাসপোর্ট বানানো এখন সহজ ব্যাপার, মোবাইলে এই অ্যাপ থাকলেই হবে! কিন্তু এত টাকা লাগবে

অনলাইনে আবেদন কীভাবে করবেন?

যুবশ্রী প্রকল্পে আবেদন করতে প্রথমে যুবশ্রীর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট employmentbankwb.gov.in খুলতে হবে।

এই সাইটটি খুললেই আপনি ‘Job Seeker’ বলে অপশন পাবেন। সেই অপশন ক্লিক করে নতুন এনরোলমেন্ট বা রেজিস্ট্রেশনে করতে হবে আর সঠিক তথ্য ও প্রয়োজনীয় সব দরকারি নথি আপলোড করতে হবে ও শেষে সাবমিট করে দেবেনন।

ওই ফর্ম ফিলাপের পর ফর্মের প্রিন্ট আউট নিয়ে আবেদন করার ৯০ দিনের মধ্যে SDO অফিসে গিয়ে প্রিন্ট আউট টি জমা দিতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *